ডিজিটাল মার্কেটিং কি ? Best in 2022

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ? ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে শিখব ?

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ? ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে শিখব ? ডিজিটাল মার্কেটিং বর্তমানে এমন একটি বিষয় হয়ে গিয়েছে এটা সকল ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় অনলাইনের মধ্যে থাকার জন্য | যদি একজন বিগিনার সঠিক গাইডলাইন গুলো না পায় কিভাবে সে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখবে তাহলে কিন্তু তার অনেক সময় নষ্ট হবে এবং সে বুঝতে পারবে না কিভাবে সে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে যাবে |

তাই অবশ্যই একজন বিগিনার এর প্রয়োজন সঠিক গাইডলাইন ধরে সমস্ত বিষয় গুলো ধাপে ধাপে শিখে নেওয়া | ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে কিন্তু অনেকগুলো সেক্টর রয়েছে | এটা কিন্তু আপনি চাইলে 1 দিন বা এক মাসের ভিতরে সম্পন্ন শিখতে পারবেন না | যেহেতু ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে অনেকগুলো বিষয় রয়েছে তো আপনাকে অবশ্যই কোন কিছু বিষয় নির্দিষ্টভাবে সিলেক্ট করে নিতে হবে আপনার জন্য যে আমি এই বিষয়গুলোর উপর এই কাজ করব এবং এই গুলোর উপরে স্পেশালিস্ট হয়ে যাব |

তাহলে চলুন এখন বলা যায় ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়টা কি এটা সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা আপনাদেরকে দেওয়া যাক |

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ?

বর্তমান যুগে এমন হয়ে গিয়েছে যে সকল মানুষ চায় তাদের কাজগুলো অনেক সহজ ভাবে করে দেওয়ার জন্য সকল কাজ গুলো অনেক ভাব সহজভাবে করার জন্য | সকলেই চায় তারা যে কাজগুলো করবে সে কাজগুলো করতে যাতে কোন রকম কষ্ট করতে না হয় তাদের জন্য |

এই বিষয়টি মাথায় রেখে আপনারা যখন ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে নামবেন তাহলে অবশ্যই আপনার ভালো একটি কিছু করতে পারবেন | কারণ আপনারা সকলেই ডিজিটাল মার্কেটিং লাইনে যেহেতু কাজ করবেন সে তো আপনাকে প্রথমত আপনার অডিয়েন্স দের ধারণাটা বুঝতে হবে |

ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে প্রযুক্তি ভিত্তিক| প্রযুক্তিভিত্তিক অর্থ অনলাইনের মধ্যে যে সকল জিনিসপত্রগুলো আছে বা যে সকল পণ্য বা সার্ভিস নি আপনি কাজ করবেন সে সার্ভিস বা পণ্য সঠিক মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া | এ পণ্য বা সার্ভিস গুলো যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায় |যাতে করে তারা সহজেই সেই সার্ভিস গুলো খুঁজে পায় তাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলা হয় সহজ ভাষায় |

তাহলে এখন আমরা বুঝতে পেরেছি ডিজিটাল মার্কেটিং হল বর্তমান যুগে প্রযুক্তির যুগ এর মধ্যে যে মার্কেটিং গুলো করা হয় সেটাকে নির্দিষ্ট করে থাকে| অনলাইনের মধ্যে যাতে সহজেই আপনার যে সার্ভিসটি আপনি প্রদান করতেছেন বা যে পণ্যটি প্রদান করতেছেন তা যাতে করে সঠিক লোকের কাছে অনেক সহজেই পৌঁছে যায়| এই কাজটির যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করা হয় তাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলা হয় এটাও কিন্তু আপনি ধরে নিতে পারেন |

ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রকারভেদ :-

ডিজিটাল মার্কেটিং কিন্তু অনেক প্রকার হয়ে থাকে | আমি প্রথমেই বলেছি ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভিতরে অনেকগুলো কাজ আছে যেগুলো আপনি সবগুলো জানতে পারবেন না | সবগুলোর উপরে আপনি বিগিনিং অবস্থায় বা প্রথম অবস্থায় শিখতে পারবেন না |

সেটা করতে গেলে অবশ্যই আপনার অনেক বেশি টাইম এর প্রয়োজন হবে এবং আপনি সঠিক গাইডলাইন পাবেন না | বর্তমানে যারা নতুন ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে চাচ্ছে তাদের একমাত্র সঠিক গাইডলাইন না পাওয়ার কারণে অনেক দ্রুত মনোবল হারিয়ে ফেলছে | তাই চেষ্টা করুন অবশ্যই সঠিক গাইডলাইন নিয়ে সঠিকভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার | অবশ্যই আপনি সঠিক গাইডলাইন পেলে অনেক দ্রুত এবং অনেক বেশি এক্সপার্ট হয়ে যাবেন ডিজিটাল মার্কেটিং এর ওই বিষয়ের উপরে |

তাহলে চলুন এখন বলা যায় প্রথমত ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে হলে কোন কোন বিষয় নিয়ে আপনাকে কাজ করতে হবে :-

এসইও :- এসইও এটি ওয়েবসাইট বা কোন একটি ভিডিও প্রমোশন এর ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয় | বা আপনি ধরে নিতে পারেন সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে কোন কিছু সার্চ করার পরে যেই ফলাফলগুলো সার্চ ইঞ্জিন প্রদর্শন করে সেগুলো জি সিরিয়াল অনুযায়ী প্রদর্শন করে একজন ভিজিটর এর সামনে | সেটা যে প্রক্রিয়া তে কাজ করে সেটা একজন এসইও এক্সপার্ট সঠিকভাবে বুঝতে পারে |

অর্থাৎ একজন এসইও এক্সপার্ট যখন সে সঠিকভাবে এসইও এর কাজগুলো সঠিকভাবে করবে তাহলে দেখা যাবে অনেকগুলো রেজাল্ট এর মধ্যে তার রেজাল্ট সার্চ ইঞ্জিন সবার উপরে প্রদর্শন করবে | আমরা যখন সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে কোন বিষয় নিয়ে সার্চ করে তখন দেখা যায় ওই বিষয়ের উপরে সার্চ ইঞ্জিনে গেছে কিন্তু অনেকগুলো ডাটা রয়েছে |সেই ডাটাগুলো কিন্তু একটি সিরিয়াল অনুযায়ী গুগোল একজন ভিজিটর সামনে প্রদর্শন করে থাকে |

সেই বিষয়গুলো যেভাবে মেনটেন করে সিরিয়াল অনুযায়ী প্রদর্শন করে সেটা মূলত একজন এসইও এক্সপার্ট ভালোভাবে বুঝতে পারে কি করলে তার লেখা কৃত বা তার কাছে যে কাজটি এসেছে সেটাকে সবার উপরে প্রদর্শন করাতে হয় বা প্রদর্শন করাতে হবে |তাই প্রথম অবস্থায় আপনি এসইওর কাজটা কিন্তু শিখে নিতে পারেন | এবং এর ডিমান্ড বর্তমানে অনেক বেশি রয়েছে | এবং এসইও এর মধ্যে কিন্তু দেখা যাবে অনেকগুলো সেক্টর রয়েছে আমি দু একটা বিষয় আপনাদের কে বলে দিচ্ছি |

 

  • কিওয়ার্ড রিসার্চ |
  • ব্যাকলিংক চেক
  • কম্পিটিটর এনালাইসিস
  • ব্যাক লিঙ্ক বিল্ডিং
  • অনপেজ এসইও
  • অফ পেজ এসইও

এমন অনেক কাজ রয়েছে এসইও এর মধ্যে তাহলে কিন্তু বুঝা যায় আপনি যে কোন একটি বিষয় নিয়ে প্রথমে শুরু করতে হবে এবং সেই বিষয়ে আপনাকে সম্পূর্ণভাবে এক্সপার্ট হতে হবে |

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং :-

এফিলিয়েট মার্কেটিং এটিও কিন্তু একটি অনেক ভালো একটি কাজ ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে | আমি প্রথমে আপনাদেরকে একবার বলেছি যে ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে অনেকগুলো কাজ রয়েছে এবং এর সকল কাজ কিন্তু একজনের পক্ষে শেখা সম্ভব হলেও এ স্পেশালিস্ট হতে পারবে না |

তাই অবশ্যই আপনাকে যেকোন একটি গাছের উপরে স্পেশালিস্ট হতে হবে এবং আপনাকে অনেক দক্ষ হয়ে উঠতে হবে ওই কাজের উপরে এবং সেটা আপনি নিজেই সিলেক্ট করতে হবে | কিন্তু আপনাকে সকল কাজের উপরে একটা আইডিয়া রাখতে হবে | তাহলে চলুন এখন বলা যাক অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে :-

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মূল নীতি হলো আপনি কোন একটি প্রতিষ্ঠান বা কোন একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর ওয়েবসাইট সার্ভিস প্রদান করেছে তাদের সার্ভিসগুলো আপনি এডভার্টাইসিং করতেছেন | বা তাদের পণ্যগুলো আপনি এডভার্টাইসিং করতেছেন |  তখন যদি আপনার মাধ্যমে কোনো ব্যক্তি বা আপনি যে জায়গাতে এডবেডেস লিংকগুলো করেছেন সে জায়গা থেকে বা আপনার বিচি লিংকটি থাকবে সেই লিংকের মাধ্যমে যদি কোন ব্যক্তি ওই প্রশ্নগুলো ক্রয় করে বা সার্ভিসগুলো নিতে চায় বা নেয় তাহলে কিন্তু যে অর্থ দিয়ে সে সার্ভিসটি নিবে বাজে অর্থ দিয়ে সে পণ্যটি ক্রয় করবে সে অর্থ থেকে আপনি কিন্তু কিছু কমিশন পাবেন |

অর্থাৎ আপনি অন্য কোন একজন ব্যক্তির যে সার্ভিস প্রদান করতে এসছে বা পণ্য বিক্রি করতেছে তার প্রশ্নগুলো আপনি মার্কেটিং করে বা অ্যাডভার্টাইজমেন্ট করে বিক্রি করতে তাকে সাহায্য করতে চান তাহলে সেখান থেকে কিছু পারসেন্ট কমিশন আপনি পাবেন যদি আপনার মাধ্যমে সার্ভিস বা পণ্য গুলো বিক্রি হয়| সেটা অবশ্যই আপনার লিংকের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি বা সার্ভিস গ্রহণ করতে হবে  আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মূল বিষয়বস্তু | এখন আপনারা বলতে পারেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের কিরকম কাজ রয়েছে আপনি যদি সঠিকভাবে এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন তাহলে আপনি প্রতিমাসে ভালো একটি পরিমাণ এর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন |

এই এফিলিয়েট মার্কেটিং করেই বর্তমানে অনেক লোক আছে যারা নিজেদের সংসার খুব সহজেই চালিয়ে নিতে পারতেছে এবং ভালো একটি পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতেছে শুধুমাত্র এফিলিয়েট মার্কেটিং করেই |অ্যাপলেট মার্কেটিং এর ডিমান্ড কোনদিনও কমবে না যতদিন পর্যন্ত অনলাইন জগতের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে | এর কারণ হলো প্রতিনিয়ত কিন্তু সকল বিজনেসম্যান গুলো তাদের বিজনেস অনলাইনে নিয়ে আসতেছে এবং প্রতিটা কোম্পানিতে প্রায় এফিলিয়েট লিংক রয়েছে সে এফিলিয়েট লিংক গুলো কি আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং হিসেবে ব্যবহার করেন তাহলে কিন্তু আপনি প্রতিমাসে ভালো একটি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং :-

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং অর্থ হলো সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে আপনারা দেখবেন অনেক সময় কিছু ক্যাম্পিং চলে অর্থাৎ কিছু বুষ্টিং এর কাজ চলে শুধুমাত্র বুষ্টিং সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে অনেকগুলো কাজ রয়েছে | যে কাজ গুলো প্রতিনিয়ত করতে হয় সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে এবং সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে হিউজ পরিমান ট্রাফিক রয়েছে | এবং সেটা হলো অনেক বড় একটি মার্কেটপ্লেস একজন ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাছে | কারণ প্রতিদিনই সেই সকল সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক পরিমাণে ট্রাফিক আসে |

অনেক কোম্পানি রয়েছে যারা সোশ্যাল মিডিয়াতে এত বেশি ট্রাফিক থাকা সত্ত্বে তাদের কোম্পানিগুলো সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে মার্কেটিং করতে চায় | এবং বর্তমানে তা প্রতিদিন বেড়েই চলেছে এবং প্রতিনিয়ত তাঁরা সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে মার্কেটিং করে যাচ্ছে | তাহলে কিন্তু দেখা যায় সোশ্যাল মিডিয়াতে যেহেতু প্রতিনিয়ত মার্কেটিং চলতেছে এবং প্রতিনিয়ত কাজ পাচ্ছে তাহলে কিন্তু আপনি চাইলে সেখানে একটি ভালো ক্যারিয়ার গড়ে নিতে পারেন প্রতিনিয়ত আপনি কাজ করেও সেখান থেকে ভালো পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারেন |

সোশ্যাল মিডিয়ায় কিন্তু অনেকগুলো রয়েছে আপনাকে অবশ্যই সবগুলো নিয়ে সর্বপ্রথম কাজ করা যাবে না | আপনি যেকোনো একটি সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে কাজ করতে হবে | আপনি চাইলে কিন্তু ইনস্টাগ্রম মারকেটিং নিয়োগ কাজ করতে পারেন বা আপনি চাইলে ফেসবুক মার্কেটিং নিয়ে কাজ করতে পারেন |

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর মধ্যে যে সকল বিষয়গুলো রয়েছে তা হলো |

  • ফেসবুক মার্কেটিং
  • ইনস্টাগ্রম মারকেটিং
  • টুইটার মার্কেটিং
  • লিনকিং মার্কেটিং
  • ইউটিউব মার্কেটিং

এমন অনেক ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া আছে যেগুলোর মধ্যে আপনি চাইলে কিন্তু খুব সহজেই শিখে নিয়ে কাজ করতে পারবেন | কিন্তু অবশ্যই মনে রাখবেন যে বিষয়ের উপরে আপনি কাজ করবেন সে বিষয়ে আপনাকে অনেক দক্ষ হয়ে যেতে হবে | তখনি কিন্তু আপনি ভালো পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন এবং সঠিকভাবে কাজ করতে পারবেন |

আমাদের শেষ কথা :-

আমরা এখানে বেশী বিষয় নিয়ে আলোচনা করি নি আমরা শুধুমাত্র কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি যেগুলো বর্তমানে বাংলাদেশের মধ্যে থেকেও আপনি ভালভাবে কাজ গুলো চালিয়ে যেতে পারবেন |

যদি আপনি সম্পূর্ণ আর্টিকেল টাইপ করেন তাহলে অবশ্যই আপনি বুঝতে পারবেন কোন কাজগুলো করলে আপনি প্রফিটেবল হবেন এবং আপনার জন্য কোন কাজটি সবচেয়ে উত্তম হবে | কাজগুলোর বেসিক ধারণা কিন্তু আপনি পেয়ে যাবেন |ধন্যবাদ সবাইকে আবার দেখা হবে আজকের জন্য এখানেই বিদায় |

Leave a Reply

Your email address will not be published.