এসইও কি ? Best in 2022

এসইও কি ? এর কাজ কি ?

এসইও কি ? এর কাজ কি ? এসইও হলো এমন একটি কাজ যা বর্তমানে মার্কেটিং এর সকল ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় অনলাইনে । অনলাইনের মধ্যে উপার্জন বা মার্কেটিং যেটাই করা হোক না কেন তার মধ্যে এসইও অবশ্যই করতে হয় । ভিজিটর অনেক বেশি বেড়ে যায় । অনলাইন জগতে এসইও অনেক পপুলার একটি বিষয় । এসইও কি ? এসইও হলো ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি অংশ । এটির মাধ্যমে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্টান আপনার পণ্য বা আপনার ব্লগ এর মধ্যে কাঙ্খিত ট্রাফিক থেকে উচ্চতর ট্র্যাফিকে নিয়ে যাওয়া যায় । অর্থাৎ আপনার কোন একটি ব্লগ বা কোন একটি এজেন্সি রয়েছে সেখানে যদি আপনি সঠিকভাবে এসইও করেন তাহলে আপনি যে রয়েছেন রেংকে থেকে উচ্চতর রেংকে নিয়ে যাওয়া হয় ।

এখনকার দিনে অনলাইনের মধ্যে আপনার যদি উপার্জন করতে চান তাহলে এসইও এর বিকল্প নেই  এসইও করে আপনি আপনার উপার্জনকে অনেক গুণ বেশি বাড়িয়ে নিতে পারেন । এতে করে আপনার অনলাইনের মধ্যে ব্লগ গ্রুপ এজেন্সি থাকুক তার মধ্যে অর্গানিক ট্রাফিক অনেক বেশি বাড়ানো যায় । তাই এসইও সকল ক্ষেত্রে অনেক বেশি প্রয়োজন । তাই চলুন এখন এসইও কি এই সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা যাক । আপনারা যদি সঠিকভাবে এই ব্লগ টি পড়েন তাহলে কিন্তু এসইও সম্পর্কে অনেক ভালো ধারণা পাবেন । আশা করি আপনারা যদি এই ব্লগটির সম্পূর্ণভাবে পড়েন তাহলে এসইও এর খুঁটিনাটি বিষয়গুলো অবগত হবেন তাই অবশ্যই সম্পন্ন ব্লগ টি পড়বে ।

এসইও কি ?

SEO এটি একটি সংক্ষিপ্ত শব্দ এর একটি পূর্ণ রূপ রয়েছে এবং সেটি হল (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ) অর্থাৎ আমরা যদি কোন একটি সার্চ ইঞ্জিনে গিয়ে কোন কিউ আর লিখে সার্চ করে বা কোন কিছু লিখে সার্চ করে । তখন কিন্তু আমাদের সামনে অনেক পরিমাণে ফলাফল প্রদর্শন করে সেই সার্চ ইঞ্জিন । তখন কিন্তু আমরা আমাদের কাঙ্খিত ফলাফল টি অনেক সহজে খুঁজে পায় এতে করে আমাদের তেমন কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না । সার্চ ইঞ্জিন এর কাছে যেই ডাটাগুলো থাকে সকল ডাটা কে সিরিয়াল মেনটেন অনুযায়ী বা কিছু অ্যালগরিদম রয়েছে সে অ্যালগোরিদম অনুযায়ী প্রদর্শন করে থাকে ।

যে সিরিয়াল বা যে লিস্টিং করে থাকে সার্চ ইঞ্জিন সেই লিস্টিং কেই বলা হয় সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন । মূলত এসইও করা হয়ে থাকে যেকোনো সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে যদি কোন একজন ব্যক্তি গিয়ে তার কাঙ্খিত ফলাফলের জন্য সার্চ করে সেই অনুযায়ী সেই সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে অনেক ডাটা রয়েছে । সেই ডাটা গুলো কে সঠিকভাবে লিস্টিং করে শিব ভিজিটরকে প্রদর্শন করে থাকে । যে সকল অ্যালগরিদম রয়েছে সেই সেই সার্চ ইঞ্জিনের সেই অ্যালগরিদম অনুযায়ী লিস্টিং গুলোর মূলত করা হয় । আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন এসইও এর মানেটা কি । সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলা হয় ।

কি কারনে মূলত এসইও করা হয়ে থাকে :-

এসইও করা হয় মূলত কোন একটি ব্লগ বা কোন একটি সার্ভিস প্রদান করে বা কোনো পণ্য বিক্রয় প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ওয়েবসাইট তাদের যে রেঙ্ক রয়েছে সেই রেঙ্ক এর উন্নতি করার জন্য । অর্থাৎ আপনি গুগলে সার্চ লিস্টে যদি আপনার পোষ্ট কিত আর্টিকেল এর কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করেন তখন যদি আপনি গুগোল এর 50 তম পজিশনে থাকেন সার্চ লিস্ট এর সেই পজিশন থেকে আপনার আর্টিকেল কে গুগলের টপ টেন এর ভিতর নিয়ে আসার জন্য যে প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয় তাকেই বলা হয় এসইও ।

এতে করে আপনার কিন্তু অনেক বেশি ভিজিটর বেড়ে যাবে । এবং আপনি যে উদ্দেশ্যে আপনার ওয়েবসাইটটি তৈরি করেছেন ভাবনার ব্লক কে তৈরি করেছেন সেটি অনেক দ্রুত উন্নতি ঘটাবে । মূলত এসইও করা হয় সেই ওয়েবসাইটগুলোর রেঙ্ক উন্নত করার জন্য । এতে করে আপনি অনেক সহজেই অনেক বেশি পরিমাণে সার্চ ইঞ্জিন থেকে অর্গানিক ট্রাফিক পেয়ে যাবেন । আশা করি আপনারা সমস্ত বিষয় বুঝতে পেরেছেন এসইও কেন ব্যবহার করা হয় এবং এসইও কি জিনিস ।

এসইও কেন শিখব :-

এসইও কেন শিখবেন এটি যদি আপনার মাথায় প্রশ্ন হিসেবে ঘুরপাক করে তাহলে আপনি কিন্তু ভালো একটি প্রশ্নের পেয়েছেন বা ভালো একটি প্রশ্ন করেছেন । আপনি কেন এসইও শিখবেন এটা আপনার প্রফেশন এর উপর নির্ভর করে থাকবে । আপনি যদি কোন একজন ব্লগার হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে এসইও শিখতে হবে কারণ আপনার ব্লগ সাইট রেংকিং ফ্যাক্টরিগুলো উন্নত করার জন্য । আপনার ব্লগ সাইটের মধ্যে অর্গানিক ট্রাফিক আনার জন্য এসইও এর বিকল্প কিন্তু নেই । তখন কিন্তু আপনাকে অবশ্যই এসইও শিখে রাখতে হবে । এবং প্রতিনিয়ত আপনাকে সেই এসইও নিয়ে কাজ করে যেতে হবে । এতে করে আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে অনেক বেশি অর্গানিক ট্রাফিক আসবে সার্চ ইঞ্জিন থেকে ।

আপনি যদি একজন ডিজিটাল মার্কেটিং এক্সপার্ট হয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু আপনাকে অবশ্যই এসইও শিখে নিতে হবে আপনার কাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে এসইও এর কাজ প্রয়োজন হবে । আপনি যখন আপনার কোন ক্লাইন্ট এর কাজ করবেন । তখন কিন্তু আপনি এসইও জনিত যে সকল সমস্যা গুলো রয়েছে সেগুলো সমাধান বা উপদেশ দিতে পারবেন আপনার ক্লায়েন্টকে । তখন কিন্তু আপনার প্ল্যান অনেক বেশি খুশি হয়ে যাবে । এবং আপনিও অনেক বেশি কাজ পাবেন । তাহলে আশা করি আমরা বুঝতে পেরেছি এসইও কেন শিখব ।

এসইও প্রধানত কত প্রকার হয়ে থাকে সে সম্পর্কে এখন আমরা আলোচনা করব :-

এসইও কিন্তু অনেক ভাগে ভাগ করা যায় এটির সঠিক গণনা করা সম্ভব নয় । যেমনটি মনে করেন গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিন্তু 200 এর বেশি ফ্যাক্টর রয়েছে যেগুলো বিবেচনা করে একটি ওয়েবসাইটকে রেংক করিয়ে থাকে । এবং তারা কিন্তু জনসম্মুখে এই সকল ফ্যাক্টরগুলো উন্মোচন করে নেই ।

কিন্তু এসইও এক্সপার্ট রা যে সকল কাজ করে থাকে তার মধ্যে থেকে আমরা কয়েকটি এর নাম বলবো যেগুলো করলে গুগল সার্চ ইঞ্জিন রেঙ্ক উন্নত করে দিতে পারে । এবং এগুলো অনেক বেশী কার্যকর হয়ে থাকে ।

1 ।অন পেজ এসইও ।
2 । অফ পেজ এসইও ।
3 ।কিওয়ার্ড রিসার্চ ।
4 । এসইও আর্টিকেল ।
5 ।টেকনিকেল এসইও ।
6 । লোকাল এসইও ।
7 ।ই-কমার্স এসইও ।
8 ।পেইড এসইও
9 ।অর্গানিক এসইও ।
10 । হোয়াইট হ্যাট এসইও ।
11 । ব্ল্যাক হ্যাট এসইও ।

আমি যতগুলো ফ্যাক্টর এর কথা বলেছি এগুলো বাদে অনেকগুলো ফ্যাক্টর রয়েছে । কিন্তু আপনি চিন্তা করবেন না কোন কোন জায়গায় দেখবেন এর থেকে কম ফ্যাক্টর রয়েছে বা কোন কোন জায়গায় দেখবেন এর থেকে বেশি ফ্যাক্টর রয়েছে ।

কেউ কেউ দাবি করে মূলত এসইও ভাবে করা হয় বা দুই প্রকার ।

প্রথমত হলো :-

অনপেজ এসইও ।
অফ পেজ এসইও ।

আবার কোন কোন এসইও এক্সপার্টরা মনে করে এসইও প্রথমত তিন প্রকার হয়ে থাকে ।

1 ।অনপেজ এসইও
2 । অফ পেজ এসইও
3 ।টেকনিকেল এসইও ।

অর্থাৎ ঘুরেফিরে গুগোল এর চেয়ে ফ্যাক্টরগুলো রয়েছে সেই ফ্যাক্টর গুলোকেই নির্দেশন করে । এবং বিভিন্ন শ্রেণীবিন্যাস এর মধ্যে ভাগ করে নেয় ।

চলেন এখনি এসইও এর কয়েকটি বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করি ।

অনপেজ এসইও ।:-

অনপেজ এসইও হল ওয়েবসাইটের মধ্যে যে সকল কাজ গুলো রয়েছে সেগুলো সঠিকভাবে সম্পন্ন করা সার্চ ইঞ্জিন এর রেংকিং পজিশন থেকে উচ্চতর রেংকিং যাওয়ার জন্য ।অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইটের অভ্যন্তরে আপনার ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের টপ পজিশন এর মধ্যে আনার জন্য যে সকল কাজ করা হয় তাকে অন পেজ এসইও বলা হয়ে থাকে । যেমনটি ধরেন আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে আপনি কোন একটি পোস্ট লিখবেন সর্বপ্রথম আপনাকে সেই পোষ্টের জন্য কি ওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে । এবং সঠিকভাবে আপনাকে কিওয়ার্ড রিসার্চ করে নিতে হবে । এ বিষয়ে টা কিন্তু অনপেজ এসইও এর মধ্যে পড়ে ।

যখন আপনি পোস্টটি লিখবেন । অর্থাৎ আপনি যখন আর্টিকেল লিখবেন সে আর্টিকেলকে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল হিসেবে লিখতে হবে যাতে করে অনেক সহজেই সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে সেই আর্টিকেলটি রেঙ্ক করে যায় করে যায় করে যায় । কিন্তু এখানে একটা কথা না বললেই নয় আপনি যখন আর্টিকেলটি লিখবেন তখন আর্টিকেল এর মধ্যে সকল সত্য তা লিখে নেবেন । এবং যে সম্পর্কে আপনি আর্টিকেলটি লিখবেন সে সম্পর্কে সকল ইনফরমেশন দেওয়ার চেষ্টা করবেন আপনার অর্ডিন্যান্স । সার্চ ইঞ্জিন কিন্তু এখনো যাচ্ছে তাদের সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে যে সকল ডাটা গুলো থাকবে সে ডাটা গুলো যাতে অর্গানিক ডাটা হয় এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি ডাটা হয় ।

অর্থাৎ আপনি যে আর্টিকেলটি লিখবেন সে আর্টিকেলটি যাতে সহজভাবে কোন একজন ভিজিটর পড়তে পারে । এবং সঠিক ইনফরমেশন গুলো সেই আর্টিকেল থেকে পায় । অতএব আপনি যদি আর্টিকেলটি সঠিক ভাবে লিখেন এবং সঠিকভাবে পাবলিস্ট করতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনার আর্টিকেলটি অনেক দ্রুত রেংক করে যাবে । তাই সর্বপ্রথম আপনাকে আপনার আর্টিকেল এর উপরে মনোনিবেশ করতে হবে আপনি যেভাবে আর্টিকেল লিখবেন সেই আর্টিকেলটি সঠিক ইনফরমেশন এর উপরে ভিত্তি করে লিখা হয় এবং একজন ইউজার দেখে যাতে সে আর্টিকেলটি পড়ার ইচ্ছা পোষণ করে । এবং আর্টিকেল এর মধ্যে সঠিক ইনফরমেশন গুলো প্রোভাইড করবেন যাতে করে সেই ইউজার আর্টিকেলটি থেকে ভালো নলেজ নিয়ে যেতে পারে ।

অন পেজ এসইও এর মধ্যে রয়েছে আপনার পোষ্টের মধ্যে সঠিকভাবে ইন্টার্নাল লিনকিং এবং এক্সটারনাল লিনকিং সঠিকভাবে করা হয় । আপনার আর্টিকেল এর মধ্যে যে সকল টাইটেল গুলো ব্যবহার করবে সেই টাইটেল গুলো যাতে সঠিক টাইটেল হয়ে থাকে এবং সঠিকভাবে ডিসট্রিবিউশন করে থাকেন । আপনার প্রধান কী-ওয়ার্ডটি আপনার প্রধান টাইটেল এর মধ্যে অবশ্যই রাখতে হবে এবং আপনার আর্টিকেল এই যে লিঙ্কটি হবে সেই লিঙ্ক এর মধ্যেও রাখতে । আপনার প্রধান কী-ওয়ার্ডটি অবশ্যই আপনি যেই মেটা ডেসক্রিপশন লিখবেন তার মধ্যে থাকে এবং কৌশলে আপনার রিলেটেড কিওয়ার্ডগুলো বসাতে পারেন ।

আপনার আর্টিকেলের জন্য যেই ফিচার ইমেজ টি ব্যবহার করবেন তার মধ্যে যাতে অবশ্যই আপনার মেইন কি ওয়ার্ড থাকে । আপনার আর্টিকেল এর মধ্যে সঠিক ভাবে আপনার কি ওয়ার্ডকে ডিসট্রিবিউশন করবেন । যাতে করে সার্চ ইঞ্জিন বুঝতে পারে আপনি কোন সম্পর্কে আর্টিকেলটি লিখেছেন । সঠিকভাবে যাতে একজন ভিজিটর কে সে আর্টিকেল সম্পর্কে সার্চ করলে তার সামনে প্রদর্শন করতে পারে ।

অফ পেজ এসইও :-

অফ পেজ এসইও কি ?  অফ পেজ এসইও হলো আপনার ওয়েবসাইটের বাইরে যে সকল কাজ করা হয় আপনার ওয়েবসাইটে রেংকিং সেক্টর উন্নত করার জন্য তাকেই বলা হয়ে থাকে অফ পেজ এসইও । অর্থাৎ আপনার যে আর্টিকেলটির হয়েছে সে আর্টিকেলটি গুগলের সার্চ ইঞ্জিনের যে অবস্থানের মধ্যে রয়েছে সেই অবস্থান থেকে উচ্চতর অবস্থানে নিয়ে আসার জন্য ওয়েবসাইটের ভাইরে যে কাজগুলো করা হয় প্রধান উদ্দেশ্য আর্টিকেলকে সার্চ ইঞ্জিনের উচ্চতর অবস্থানে নিয়ে আসবে সেটাকে বলা হয় অফ পেজ এসইও ।

অফ পেজ এসইও এর মধ্যে প্রধান দুটি কাজ করা হয় সেগুলো হলো :-

ডু ফলো ব্যাকলিংক
ন ফলো ব্যাক লিঙ্ক

এখানের মধ্যেও কিন্তু অনেক বিষয় রয়েছে আমি শুধু যে 2 টি বিষয়ে নিয়ে বলেছি যে 2 টি বিষয় অনেক বেশি পপুলার । এটি করলে ওয়েবসাইটের কিন্তু অনেক দ্রুত সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে উচ্চতর রেংকে পৌঁছানো সম্ভব ।

হোয়াইট হ্যাট এসইও :-

হোয়াইট হ্যাট এসইও কি ? হোয়াইট হ্যাট এসইও সাধারণত গুগল সার্চ ইঞ্জিনের যেসকল রেঙ্ক ফ্যাক্টরগুলো রয়েছে সেগুলো মেনে কাজ করে সার্চ ইঞ্জিনের টপ পজিশনে আসার জন্য কাজ করাকে বুঝায় । অর্থাৎ সার্চ ইঞ্জিনের যেসকল রুলস গুলো রয়েছে সেগুলো সঠিকভাবে মেনে টপ পজিশনে আসার জন্য যে সকল কাজগুলো করা হয় তাকে বলা হয় হোয়াইট হ্যাট এসইও । সকল সার্চ ইঞ্জিনের কিছু নীতিমালা থাকে এবং সেগুলো প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হতে থাকে এবং প্রতিনিয়ত ভালোভালো আপডেট নিয়ে আসে ।এবং সেই আপডেটের যেসকল বিষয়বস্তুগুলো থাকে সেই বিষয়বস্তু অনুযায়ী আপনাকে আপনার কাজ করতে হবে অবশ্যই ।

ব্ল্যাক হ্যাট এসইও :-

ব্ল্যাক হ্যাট এসইও কি ? ব্ল্যাক হ্যাট এসইও  বলা হয় মূলত সার্চ ইঞ্জিনগুলো যেসকল নীতিমালা থাকে সে সকল নীতিমালা গুলো কে সঠিকভাবে না মেনে সেই সার্চ ইঞ্জিনের যে সকল ভুল গুলো রয়েছে সেগুলো কে কাজে লাগিয়ে অনৈতিকভাবে নিজের ওয়েবসাইটকে উন্নত করার জন্য যে সকল কাজ গুলো করা হয় তাকেই বলা হয়ে থাকে ।

অর্থাৎ সার্চ ইঞ্জিন প্রতিনিয়ত আপডেট হওয়ার কারণে কিছু ভুল অবশ্যই তাদের হয়ে থাকে সেই ভুলগুলো কে কাজে লাগিয়ে নিজেদের ওয়েবসাইট এর মধ্যে গুগলের টপ পজিশনে আসার চেষ্টা করা । এমন করলে কিছুদিনের জন্য গুগলের টপ পজিশনে আসা যায় । কিন্তু অবশ্যই মনে রাখবেন এটা কিছুদিনের জন্য । এবং পরবর্তীতে সেই সকল ওয়েবসাইটকে গুগল কোনদিনও রেঙ্ক করে থাকে না । এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইটকে “ পেলান্টি “ দিয়ে দেও সার্চ ইঞ্জিনগুলো । তাই এই কাজগুলো করার আগে অবশ্যই একবার ভেবে নিবেন আপনার কাঙ্খিত ও সুন্দর ওয়েবসাইটকে এরকম ভুল কাজ করে দুই একদিনের জন্য উচ্চতর রেঙ্ক এ যাওয়ার জন্য করবেন কিনা ।

আমাদের শেষ কথা ;-

আপনাদেরকে এসইও সম্পর্কে সম্পন্ন ধারণা দেওয়ার জন্য আমাদের এই ব্লগ তৈরি করা । আপনারা যদি সঠিকভাবে এই কাজগুলো করতে পারেন এবং সঠিকভাবে ব্লগ টি পড়েন তাহলে কিন্তু আপনারা অনেক দ্রুত সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে উচ্চতর পজিশনে চলে যেতে পারবেন ।

আমরা আপনাদেরকে যে বিষয়গুলো বুঝার চেষ্টা করেছি আপনারা যদি সম্পূর্ণ ব্লগ টি পড়েন তাহলে আশা করি আপনারা এসইও সম্পর্কে ভালো একটা ধারণা পেয়ে যাবেন এবং পেয়েছেন । আপনাদের মনে যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের করবেন , তাহলে আজকের জন্য এখানেই বিদায় , অন্য একদিন অন্য কোন ব্লগ নিয়ে দেখা হবে ।

3 thoughts on “এসইও কি ? Best in 2022

Leave a Reply

Your email address will not be published.